সোমবার, ১১ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৫শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

ভোটে লড়ছেন গান- নাটকের ওরা ৪জন

শম্পা রিতা, প্রতিবেদক রঙ্গমঞ্চ::

সুনামগঞ্জের পৌর ভোট আসছে ১৬ জানুয়ারি। এই ভোটে পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ডেই প্রার্থীরা এখন চালাচ্ছেন ব্যাপক প্রচার প্রচারণা। দিচ্ছেন ভোটারদের নানা প্রতিশ্রুতি। ভোটাররাও নিচ্ছেন প্রস্তুতি যোগ্য জনপ্রতিনিধি বাঁছাইয়ের। এবারের নির্বাচনে রাজনৈতিক কর্মীর বাইরেও প্রারআথী হয়েছেন অনেকেই। এলাকার মানুষের সমর্থন পেতে চেষ্টা করছেন তারা। উল্লেখযোগ্য ও প্রতিবারই ভোটের পরিচিত মুখের বাইরে মাঠে এবার লড়ছেন ৪ সাংস্কৃতিক কর্মী। নাটক আর গানের দলে মঞ্চ মাতিয়ে ফেরা আর দর্শকদের মন্ত্রমুগ্ধতায় মাতিয়ে রাখা এসব কর্মীদের পোস্টার এখন শহরের মোড়ে মোড়ে জানান দিচ্ছে ভোটের প্রার্থনা।

ভোটে ৭নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদে লড়ছেন আহসান জামিল আনাস। তিনি জাতীয় পুরস্কার প্রাপ্ত সংগীত শিল্পী।
সুনামগঞ্জের ঐতিহ্যবাহী সংগীত বিদ্যালয় লোকদল শিল্পগোষ্ঠী ও স্পন্দন সংগীত বিদ্যালয়েরও সাবেক ছাত্র তিনি। রয়েছেন সালমান শাহ্ স্মৃতি পরিষদের প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি হিসেবে দায়িত্বরত। ভোটে জয় তারই হবে বলে আশাবাদি তিনি। বলেন ‘ জনগনের ভালোবাসার কাছে বড় কোন শক্তি হতে পারেনা। যদি ভোটাররা মনে করেন সুন্দরের জয় হোক তাহলে তাদের সেবা করার সুযোগ আমিই পাবো, এই প্রত্যাশা রাখি।

অন্যদিকে সাংস্কৃতিক অঙ্গণের প্রিয়মুখ সামিনা চৌধুরী মনি রয়েছেন আলোচনায়। নাট্যকার হিসেবে শহরে এবং শহরের বাইরেও সুনাম কম নয় তার। এবার তিনিও লড়ছেন পৌর ভোটে। চাইছেন জনগনের সমর্থন।
৪-৫ ও ৬নং ওয়ার্ডে সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে ভোটারদের কাছে ভোট চাইছেন তিনি। সৃষ্টি সংগঠনের সভাপতির দায়িত্বে আছেন তিনি গত ১২ বছর ধরে। এর আগে তিনি সৌখিন নাট্য থিয়েটারে ছিলেন ১৯৯৩ থেকে। তাই জেলার সাংস্কৃতিক অঙ্গণে সক্রীয়তার পাশাপাশি এলাকার পরিচিত এইমুখ এবার ভোটে জয় পাবেন বলেই আশা করেন। বলেন ‘ মানুষের সেবা করতে পারা ভালো লাগার, তাই সেবা করতে এসেছি, যদি পৌরবাসী আমাকে সুযোগ দেন তাহলে তাদের জন্যই বাকিটা সময় কাজ করে যেতে চাই’।

এছাড়াও, এবারের ভোটে লড়ছেন আরেক সাংস্কৃতিক কর্মী চাঁদনী আক্তার। তিনিও ৪-৫ ও ৬নং ওয়ার্ডে সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদ প্রত্যাশি।
শতদল সংগীত বিদ্যালয়ের সাবেক মহিলা সাধারণ সম্পাদক। চাঁদনী আক্তার শিল্পকলার পরিচিতমুখ।
একতা নাট্য সংগঠনের সাংস্কৃতিক সম্পাদক হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছেন। ভোটের মাঠে জনসমর্থন পেতে দিন রাত প্রচারণায় ব্যস্ত সময় কাটছে তার। বলেন‘ এই ভোটে দলাদলির চেয়ে মানুষ নির্বাচিত করবেন তাদের পছন্দের মানুষকে, তাই জনগনের জন্য কাজ করার মানসিকতা নিয়েই ভোটে এসেছি’।

সুনামগঞ্জ পৌরসভার নির্বাচনে প্রচার প্রচারণায় ব্যস্ত সময় কাটছে সাদিকুর রহমান খান রুবেলেরও। তরুণ এই সাংস্কৃতিক কর্মীকে শহরের মানুষ নাটকের দলের অন্যতম অভিনেতা হিসেবেই জানেন। শহরকে ফুলের বাগানের মতো করে সাজানোর প্রতিশ্রুতি দিয়ে ভোটারদের ঘরে ঘরে ভোট চেয়ে সময় কাটছে তার। দলনেতা হিসেবে সুনামগঞ্জ প্রসেনিয়াম থিয়েটারে নেতৃত্বও ভালোই চালিয়ে নিচ্ছেন রুবেল। এর বাইরেও ভালো কাজের সঙ্গে থাকার প্রত্যয়ে কাজ করছেন প্রগতি সংগঠনের মুখপাত্র হিসেবে। বলেন‘ নাগরিকরা বোকা নন, তারা বুঝে এবং ভালো করে জেনেই তাদের এলাকার জন্য কাজ করতে পারবে এমন একজনকে নির্বাচিত করবেন, তাই আমি আশা রাখি, এলাকার মানুষের সেবা করতে পারাটা আমার বড় স্বপ্ন’।

এসব সাংস্কৃতিক কর্মীরা নির্বাচনের মাঠ সরগরম করে রেখেছেন তাদের কার্যক্রমে। ব্যালটে নাগরিকরা তাদের মূল্যায়ন করবেন এটাই তাদের প্রত্যাশা। নির্বাচন অফিসার ও জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা মুরাদ উদ্দিন হাওলাদার সুনামগঞ্জ২৪.কম কে বলেন‘ একটি অবাধ ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচন আয়োজনের সব ধরণের প্রস্তুতি শেষ করা হয়েছে, নিরাপত্তা ব্যাবস্থাও ঢেলে সাজানো হয়েছে, আশা রাখি ১৬ জানুয়ারি ফলাফলে ভোটারদের সিদ্ধান্তই চুড়ান্ত হবে।

সুনামগঞ্জ২৪.কম/ এসআর/ এমএআই