বুধবার, ১ কার্তিক ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৬ অক্টোবর ২০১৯ ইং

মীরাক্কেল ১০-এ সুনামগঞ্জের পান্না ও শান্ত

নিউজটি শেয়ার করুন

ইফতেখার সাজ্জাদ:

মানুষ হাসতে পারে শুধু আনন্দ পেলেই। কাউকে হাসতে দেখলেও মন ভরে ওঠে ভালো লাগার অনুভূতিতে। সবার মাঝে রাশি রাশি হাসি ছড়িয়ে দিতে কলকাতার জি-বাংলা চ্যানেলের আয়োজন করে একটি জনপ্রিয় কৌতুকাশ্রয়ী রিয়েলিটি শো, যার নাম হচ্ছে ‘মীরাক্কেল’ আক্কেল চ্যালেঞ্জার। ২০০৬ সালে শুরু হওয়া এই অনুষ্ঠানটি ভারত, বাংলাদেশসহ সারা পৃথিবীর বাংলা ভাষার মানুষের অন্যতম জনপ্রিয় অনুষ্ঠান হিসাবে স্থান করে নিয়েছে।

প্রতিবারের ন্যায় এবার কমেডি রিয়েলিটি শো মীরাক্কেল ১০ এর আয়োজন করছে জি-বাংলা চ্যানেল। আর প্রতিবারের ন্যায় এবারও এ প্রতিযোগিতায় অংশ নিচ্ছে বাংলাদেশের প্রতিযোগিরা। গত ২৭ সেপ্টেম্বর ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে ঢাকার গুলশানের এম্মানুয়েলস ব্যাঙ্কুয়েটিং হলে অনুষ্ঠিত হলো এ কমেডি রিয়েলিটি শো এর বাংলাদেশ পর্বের অডিশন।

অডিশন শেষে বিচারকদের রায়ে মোট ৫৩৮ জন অংশগ্রহনকারীর মধ্যে সুনামগঞ্জের সন্তান কৌতুক অভিনেতা ফাহমিদুর রহমান ও মাহবুবুল হক শান্তসহ বাংলাদেশের ১৩জন প্রতিযোগি মীরাক্কেল ১০-এ অংশগ্রহণের সুযোগ পেয়েছে।

ফাহমিদুর রহমান পান্না সুনামগঞ্জ পৌরসভার মোহাম্মদপুরের বাসিন্দা মোঃ আব্দুল কদ্দুসের ছেলে। পান্না মদন মহন কলেজ থেকে হিসাববিজ্ঞানে স্নাতক শেষ বর্ষে পড়ছে। সে সুনামগঞ্জের সুপরিচিত একজন কমেডি শিল্পী, পাশাপাশি সুনামগঞ্জ কমেডি ক্লাবের সভাপতি।

অন্যজন জামালগঞ্জ উপজেলার সাচনাবাজার ইউনিয়নের মৃত মোঃ নুরুল হকের ছেলে মাহবুবুল হক শান্ত।
শান্ত ঢাকায় ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব ফ্যাশন টেকনোলজিতে ডিপ্লোমা ইন টেক্সটাইল ইন্জিনিয়ারিং পড়ছে। পাশাপাশি
সুনামগঞ্জ কমেডি ক্লাবের সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক পদে দায়িত্বে আছে।

রিয়েলিটি শো মীরাক্কেল-১০ এ সুযোগ পাওয়া ১৩ বাংলাদেশীদের মধ্যে সুনামগঞ্জের পান্না ও শান্ত আরো এগিয়ে যেতে চায়। তাদের সামনে সে সুযোগ নিয়ে এসেছে জি-বাংলার মীরাক্কেল আক্কেল চ্যালেঞ্জার্স। এখন দেখার পালা অদম্য প্রাণশক্তি ও প্রতিভার অধিকারী পান্না ও শান্ত কলকাতা কিভাবে মাতাবে। তাদের সাফল্যের দিকে তাকিয়ে থাকবে পুরো সুনামগঞ্জবাসী।

উল্লেখ্য, ‘মীরাক্কেল আক্কেল চ্যালেঞ্জার’ পরিচালনা করেন শুভঙ্কর চট্টোপাধ্যায়। আর অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করেন মীর আফসার আলী। মূল পর্বগুলোতে বিচারকের দায়িত্ব পালন করেন শ্রীলেখা মিত্র, রজতাভ দত্ত ও পরাণ বন্দোপাধ্যায়।

সুনামগঞ্জ২৪.কম/এসএম

নিউজটি শেয়ার করুন

☑ বিজ্ঞাপন™

☑ বিজ্ঞাপন™

☑ বিজ্ঞাপন™

☑ বিজ্ঞাপন™