সোমবার, ২৯শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৩ই জুলাই, ২০২০ ইং

অস্থিতিশীল শহরের পেঁয়াজের বাজার: ভোগান্তি মধ্যবিত্ত ও অল্প আয়ের মানুষের

খবরটি শেয়ার করুন:

মনোয়ার চৌধুরী::

অস্বাভাবিক ভাবে পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধি পেতে শুরু করেছে গত কয়েক সপ্তাহ থেকেই। কয়কদিনের ব্যবধানে অস্থিতিশীল হয়ে পরেছে জেলা শহরের পেঁয়াজের বাজার। পেঁয়াজের আড়ত থেকে শুরু করে খুচরা ব্যবসায়িরা মোটা মুনাফায় বিক্রি করছেন দেশি-বিদেশি পেঁয়াজ। অবস্থা এমন যে নিত্য প্রয়োজনীয় অধিকাংশ ভোগ্য পণ্য থেকে কয়েক গুন বেশী দরে কিনতে হচ্ছে পেঁয়াজ। এতে স্বল্প আয়ের বা মধ্যবিত্ত পরিবারের মানুষরা পরেছেন সবচেয়ে বেশী দূর্ভোগে।

দিনব্যাপী সুনামগঞ্জ শহরের নতুনবাজার এলাকা, জেল রোড, আলফাত স্কয়ার(ট্রাফিক পয়েন্ট), মল্লিকপুর, ওয়েজখালী, হাসন নগর, ষোলঘর, মোহাম্মদ পুর, নবীনগরসহ শহরের বিভিন্ন বাজার ও গুরুত্বপুর্ণ মোড়ের দোকানগুলো ঘুরে এই তথ্য তোলে এনেছেন এ প্রতিবেদক। ব্যাবসায়িদের দেয়া তথ্য বলছে, আবারও হঠাৎ করে ৪০থেকে ৫০ টাকা বেড়ে প্রতি কেজিতে পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ১৪০থেকে ১৫৫টাকা পর্যন্ত দরে।

✅ আপনাদের ভালোবাসায়

ক’দিন পর পর পেঁয়াজের বাজারে চলেমান এই অস্থতিশীলতায় অল্পআয়ের মানুষ অতিষ্ঠ হয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। শহরের বলাকাপাড়া এলাকার বাসিন্দা আবুল খায়ের বলেন ‘পেঁয়াজের এমন দাম যে বর্তমানে চাউল থেকে পেঁয়াজের দাম বেশি, এখন একসঙ্গে মাসিক বাজারে পেঁয়াজ না কিনে এলাকার খুচরা দোকান থেকে অল্প অল্প করে কিনতে হয়’।

নতুন বাজার এলাকায় আরেক ক্রেতা ফয়েজ আহমেদ বলেন ‘দিন দিন এভাবে পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধি হওয়াতে অল্প আয়ের মানুষের জন্য কষ্ট বেড়েছে, আজ ১৪০টাকা কেজি কিনতে হয়েছে। ধারারগাঁও এলাকার বাসিন্দা মনির হোসেন বলেন ১দিন আগে পেঁয়াজ নিলাম ১১৫ টাকা কেজি করে, আজ ১৪৫টাকা, বোকা বনে গেলাম’।

এব্যাপারে খুচরা ব্যবসায়ী রাজু সরকার বলেন ‘পেঁয়াজের দামের এখন নিশ্চিত কিছু বলা যায়না, আজ ১৩০টাকা হতে পারে কাল ১৫০ বা আরও বাড়তে পারে’। খুচরা ব্যবসায়ী মোহাম্মদ শহিদুল্লাহ বলেন আমরা পাইকারীভাবে আজ ১৩৫ টাকায় কিনেছি তাই আজ ১৪০টাকা করে বিক্রি করতে হচ্ছে।’

নতুন বাজার এলাকার পাইকারী ব্যবসায়ী মেসার্স অমরিত লাল রায় (বিম) পাইকারী দোকান থেকে নিকশন আহমেদ বলেন আজ আমাদের দোকানেই পেঁয়াজ ১২০থেকে ১২৫ টাকা করে বিক্রি করেছি।

অসাধু ব্যবসায়ীরা মুনাফা লুটলেও সাধারণ ভোক্তার নাভিশ্বাস বাড়ছে। পেঁয়াজের অতিরিক্ত দামের কারণে ক্রেতারা বিপাকে পড়েছেন। ব্যবসায়ীরা পুরনো চালানের দেশি-বিদেশি পেঁয়াজ তাদের ইচ্ছা অনুযায়ী দাম বাড়িয়ে বিক্রি করছেন বলে অভিযোগ রয়েছে ক্রেতাদের পক্ষ থেকে।
খুচরা দোকান গুলাতে ১৪০টাকা থেকে ১৫০টাকা পর্যন্ত বিক্রি হচ্ছে প্রতি কেজী পেঁয়াজ। এছাড়াও অনেক দোকানে পেঁয়াজ বিক্রি করা বন্ধ করে দিয়েছেন কিছু ব্যবসায়ীরা । তারা বলেছেন দাম নাগালের মধ্যে না আসা পর্যন্ত পেঁয়াজ ওঠাবেন না তারা।

সুনামগঞ্জ২৪.কম/ এমসি/ এমএআই

খবরটি শেয়ার করুন:

✅ বিজ্ঞাপন

✅ বিজ্ঞাপন

✅ বিজ্ঞাপন