বৃহস্পতিবার, ২৯শে কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৩ই নভেম্বর, ২০১৯ ইং

বেতগঞ্জ বাজারে গ্রামবাংলার ঐতিহ্যবাহী কিচ্ছাগানের আসর

খবরটি শেয়ার করুন

প্রিয়াংকা কর :
সময়ের পরিবর্তনে হারিয়ে যাচ্ছে গ্রামবাংলার হাজার বছরের সংস্কৃৃৃৃতি, ঐতিহ্য সহ আরো নানান কিছু ৷ তার মধ্যে কিচ্ছাগানের আসর অন্যতম ৷ এক সময় গ্রামবাংলার আনাচে কানাচে রাতব্যাপী বিভিন্ন বিষয়ের উপর আয়োজন করা হতো কিচ্ছাগানের ৷ যা আজ প্রায় অনেকটাই বিলুপ্তির পথে ৷ চমকপ্রদ কথা হলো আজ কিছুদিন ধরে দেখা যাচ্ছে সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার মোল্লাপাড়া ইউনিয়নের বেতগঞ্জ বাজার এলাকার বেশ কিছু গ্রামে প্রতিদিন রাতে অনুষ্ঠিত হচ্ছে কিচ্ছাগান ৷


মঙ্গলবার রাতে বেতগঞ্জ বাজার সংলগ্ন রামেশ্বরপুর বলাইর বাড়ির উঠানে অনুষ্ঠিত হয় এক বিশাল কিচ্ছাগানের আসর ৷ দিরাই উপজেলা থেকে আগত ৫জন শিল্পীর একটি কিচ্ছাগানের দল কথা,গান আর নাটকীয় ভঙ্গির মাধ্যমে জমিয়ে রাখে পাঁচ শতাধিকেরও বেশী দর্শক-শ্রোতার মন ৷ আরো চমকপ্রদ কথা হলো সেখানে ছিলোনা কোনো মাইক কিংবা সাউন্ড সিস্টেম ৷ ছিলোনা দর্শক-শ্রোতাদের কোনো হৈচৈ-হট্টগোল ৷ নিরব নিঃস্তব্দ হয়ে সেই আগেকার দিনের মতো জুয়ান-বুড়ো, নারী-পুরুষ, শিশু-কিশোর মিলে খালি গলায় শুধুমাত্র হারমোনিয়াম, ঢোল আর মন্দিরার সাথে পুরো রাতব্যাপী উপভোগ করেন ইউনুসকুমার ও লালপরীর কিচ্ছাগান ৷
উক্ত আসরের সভাপতিত্ব করেন বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মোহাম্মদ শাহজাহান ৷ তিনি তাঁর বক্তব্যে বলেন,”আমাদের হাজার বছরের ঐতিহ্য কিচ্ছাগান আজ হারিয়ে গেছে ৷ আমরা আবার কিচ্ছাগানকে নতুন করে দেখতে চাই ৷ এ ব্যাপারে সবার সহযোগিতা প্রয়োজন ৷

✅ বিজ্ঞাপন
cafeneio

আসরের সার্বিক দিক-নির্দেশনায় ছিলেন সন্ধ্যামালতী বেতার পরিবারের সভাপতি, সাংস্কৃৃতিক ব্যক্তিত্ব শাহিদুর রহমান ৷ তিনি বলেন, ” গ্রামবাংলার হাজার বছরের ইতিহাস, সংস্কৃৃতি আর ঐতিহ্য অপসংস্কৃৃৃৃতির যাঁতাকলে পিসে মারা যাচ্ছে ৷ শুধু কিচ্ছাগান নয় পুঁথিপাঠ, জারীগান, বাউলগান, কবিগান, গাজী-কালুর গান, যাত্রাপালা, গম্ভীরা গান সহ গ্রামবাংলার আবহমান সংস্কৃৃতিকে নতুন করে প্রাণ দিতে হবে, বাঁচিয়ে তুলতে হবে ৷ আর তা অবশ্যই শুরু করতে হবে প্রতিটি গ্রাম থেকে৷ কেননা গ্রামবাংলার ঐতিহ্যকে ফিরিয়ে আনতে হলে গ্রামের মানুষদেরকেই সবআগে এগিয়ে আসতে হবে ৷ কিচ্ছাগানের মাধ্যমে নতুন করে আমরা যাত্রা শুরু করলাম ৷ গ্রামবাংলার ঐতিহ্য আর সংস্কৃৃৃৃতির প্রতিটি ধারাকে আমরা আবার ফিরিয়ে আনতে কাজ করে যাবো ৷

অনুষ্ঠিত কিচ্ছাগানের আসর আর্থিক সহযোগিতা সহ সার্বিক তত্ত্বাবধান করেন বেতগঞ্জ বাজার এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ, শিক্ষিত তরুণ-যুবকরা৷ তাদের সবার প্রত্যাশা গ্রামবাংলার ঐতিহ্য আবার নবরুপে ফিরে আসবে, আবার ফিরে আসবে সেই স্বর্ণালী যুগ ৷

সুনামগঞ্জ২৪.কম/এমআর

খবরটি শেয়ার করুন

✅ বিজ্ঞাপন

✅ বিজ্ঞাপন

✅ বিজ্ঞাপন