মঙ্গলবার, ১৭ই চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ৩১শে মার্চ, ২০২০ ইং

এমবিএ’র পাশাপাশি অনলাইন ব্যাবসায় সফল নারী উদ্যোক্তা ফাতেমা সিরাজ লস্কর

খবরটি শেয়ার করুন

প্রীয়াঙ্কা কর, প্রতিবেদক(নারীমঞ্চ)::

সিলেটের লিডিং ইউনিভার্সিটি থেকে এম বি এ করছেন ফাতেমা সিরাজ লস্কর । ২০১৯ সালে সুনামগঞ্জে বিয়ে হয় এই নারীর। স্বপ্ন ছিলো লেকচারার হবার। কিন্তু বিয়ের পর ৯টা থেকে ৫টা অব্দির এসব চাকরির চিন্তা মাথা থেকে ঝেড়ে ফেলেছিলেন তিনি। নিজেই কিছু করবেন ভাবনা থেকে উদ্যোক্তা হয়েছিলেন ফাতেমা সিরাজ লস্কর। ঘরে বসেই কিছু করার চেষ্টা থেকে অনলাইন সেবাকে কাজে লাগান তিনি। শুরু করেন নারীদের জন্য কসমেটিকস আর নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের ব্যবসা। এতে সফলতাও আসে এই নারী উদ্যোক্তার। পড়াশোনার পাশাপাশি সংসার আর ব্যাবসা সবই সামলে নিচ্ছেন সমান তালে।

✅ আপনাদের ভালোবাসায়

সুনামগঞ্জ২৪.কম এর নারীমঞ্চ বিভাগের প্রতিবেদককে তিনি বলেন ‘অনেকেই তো অনলাইন বিজনেস করে, তাই অনলাইন বিজনেস শুরু করব ভেবেছিলাম। কিন্তু কি নিয়ে শুরু করব সেটাই বুঝতে পারছিলাম না। তাছাড়া সুনামগঞ্জ এর বউ হিসেবে আমার পরিচিত তেমন কেউও ছিল না এখানে। একদিন একটা কসমেটিকস এর দোকানে গিয়েছিলাম কিছু টুকিটাকি শপিং করতে। দেখলাম বিদেশি প্রোডাক্টসের চাহিদা থাকলেও অনেক জিনিস ই নেই, সেগুলো পাওয়া যায়না। মাত্র একটা ২৫০টাকার সিরাম আনাতে তখন আমার ১০০ থেকে ১২০টাকা কুরিয়ার চার্জ দিতে হয়েছিল। তখনই আমি ঠিক করে নিলাম যে আমি চায়না বা থাইল্যান্ডের ইম্পোর্টেড স্কিনকেয়ার ও কসমেটিকস আইটেম নিয়ে কাজ শুরু করবো’।

এভাবেই ব্যবসায় আত্মনিয়োগ করেছিলেন এই নারী। ব্যক্তিগত বিষয়ে সার্বিক না জানালেও প্রতিবেদককে জানিয়েছেন তিনি তার ব্যবসায় সাফল্যের গল্প। তিনি বলেন‘ আমি সিলেটের মেয়ে, যেহেতু সিলেটে অনেক পেইজ আগে থেকেই ছিল তাই আমার টার্গেট কাস্টমার্স ছিলেন সুনামগঞ্জের আপুরা। কিন্তু আমি তখন কাউকেই চিনতাম না। এর কিছুদিন পর “গসিপ কুইনস” নামে একটা গ্রুপের প্রোগ্রাম হয় সুনামগঞ্জে। আমি সেখানে অংশগ্রহণ করেছিলাম। সুনামগঞ্জের অনেক আপুদের সাথে পরিচয় হয় সেখানে।”

ওইদিন নিজের ব্যাবসা শুরু করার বিষয়ে সুনামগঞ্জের নানা বয়সি নারীদের সঙ্গে ফাতেমা সিরাজ লস্কর কথা বলেন। ব্যাবসার পরিকল্পনা ভালো লেগেছিলো সুনামগঞ্জের তরুণীদের কাছে। অনলাইনে পাওয়া যায় এরকম একই প্রডাক্ট তিনি সুনামগঞ্জের নারীদের কাছে কোন রকম সার্ভিস চার্জ ছাড়াই পৌছে দেবেন বলে জানিয়েছিলেন।

তিনি বলেন ‘আলহামদুলিল্লাহ অনেক ভাল রেসপন্স পাই আমি, আমার বিয়ের পরের রোযার ঈদে বেশ ভালো একটা সালামী পেয়েছিলাম আমার শ্বশুরবাড়িতে। আর সেই সালামিকে পুঁজি করে আমি আমার প্রথম শিপমেন্ট আনাই। বেশিরভাগই প্রি অর্ডারের আইটেম ছিলো।
আমার হাজবেন্ডের মোবাইলের বিজনেস থাকায় আমি চায়নার একজন ভালো সাপ্লায়ার ও পেয়ে যাই। আর ৮মাসের এই ব্যবসায় আমার ৪টা শিপমেন্ট চলে আসে।’

এভাবেই শুরু হয়েছিলো ফাতেমা সিরাজ লস্কর এর স্বপ্নের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের। এখন তিনি প্রি অর্ডারের পাশাপাশি বেশ কিছু প্রডাক্টস স্টক করে থাকেন। সুনামগঞ্জের নানা বয়সি নারীরা এখন তার বাসায় গিয়ে বাছাইকরা এসব পণ্য সামগ্রী কিনে আনছেন। সুনামগঞ্জ২৪.কম কে তিনি বলেন “আমার এই বিজনেসে আমার ফ্যামিলির সবার অনেক সাপোর্ট পেয়েছি। সুনামগঞ্জের মতো ছোট্ট শহরে সবার কাছ থেকে এতো ভালোবাসা পাবো কখনই ভাবিনি। আমার কাছে প্রাপ্তি হলো অপরিচিত একটা শহরে একটা পরিচিতি পেয়েছি অন্যভাবে। আগে বাসা থেকে বের হলে কাউকে চিনতাম না। কিন্তু এখন ঘর থেকে বের হলেই অনেক আপুদের সাথে দেখা হয়,কথা হয়। এটাই অনেক বড় অর্জন।”

ফাতেমা সিরাজ লস্কর স্কিনকেয়ার আইটেমগুলোর পাশাপাশি ওয়েস্টার্ন টপ্স, গাউন ও দারুণসব ঘড়িও ইমপোর্ট করে থাকেন৷ পাশাপাশি বর্তমানে প্রি অর্ডারে ইন্ডিয়ান ড্রেস, শাড়ি, লেহেঙ্গা এবংনানা ধরণের গয়নাও তিনি বিক্রী করছেন। তিনি তার নিদৃষ্ট ফেসবুক পেইজ এবং গ্রুপের মাধ্যমে এসব অর্ডার নিচ্ছেন এবং সার্ভিস করছেন।

সুনামগঞ্জের বেকার পরে থাকা অসংখ্য তরুণ তরুনীর উদ্দেশ্যে তিনি বলেন ‘চাকরির পেছনে না ঘুরে নিজেই উদ্যোক্তা হয়ে যান, পরিশ্রম করলে আপনিও ঠিকই একদিন সফলতা পাবেন, তবে সবসময় সততার সাথে এবং পন্যের গুনগত মান ঠিক রেখে ব্যবসা করার চেষ্টা করতে হবে।’ যারা অনলাইন শপিং করেন তাদের উদ্দেশ্যে এই নারী উদ্যোক্তা বলেন ‘সস্তার পেছনে না ঘুরে একটু যাচাই বাছাই করে কেনাকাটা করতে হবে, কারন আজকাল অনেক ফেইক সেলার ও ফেইক পেইজ আছে যারা নকল পন্য বিক্রি করে।’।

সুনামগঞ্জ শহরে বসবাস করছেন এমন নানা বয়সি নারীরা শহরের আলফাত স্কয়ার এলাকার নেজা প্লাজা শপিং সেন্টারের ৩য় তলা থেকে সংগ্রহ করতে পারবেন ফাতেমা সিরাজ লস্কর এর কসমেটিক্স ও অন্যান্য পণ্য সামগ্রী। বর্তমানে ৩০টাকা ডেলিভারি চার্জ দিয়েও হোম ডেলিভারি নিতে পারবেন। সিলেটেও হোম ডেলিভারিতে প্রডাক্ট সরবরাহ করছেন তিনি। “colour makeup collection “ ফেসবুক পেইজ এবং ” colour makeup and skincare collection “ গ্রুপের মাধ্যমে এসব পণ্য অর্ডার করা যাচ্ছে। আত্মপ্রত্যয়ী এই নারীকে শুভেচ্ছা।

সুনামগঞ্জ২৪.কম/ নারীমঞ্চ/ পিকেপি/ এমএআই

খবরটি শেয়ার করুন

✅ বিজ্ঞাপন

✅ বিজ্ঞাপন

✅ বিজ্ঞাপন