সোমবার, ১১ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৫শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

চলন্ত বাসে ধর্ষণচেষ্টার ঘটনায় চালক শহীদ তিন দিনের রিমান্ডে

মনোয়ার চৌধুরী::

সুনামগঞ্জের দিরাইয়ে চলন্ত বাসে কলেজছাত্রীকে ধর্ষণচেষ্টার মামলায় প্রধান আসামি বাস চালক মো. শহীদ মিয়াকে তিন দিনের রিমান্ড দিয়েছেন আদালত।

সোমবার দুপুরে চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট রাগীব নূরের কাছে ৫ দিনের রিমান্ড চাইলে তিনি তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

সুনামগঞ্জ কোর্ট পরিদর্শক সেলিম নেওয়াজ জানান, পুলিশ ৫ দিনের রিমান্ড চাইলে আদালত তিনদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এ ব্যাপারে পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান বলেন, এ ঘটনায় জড়িত আরেক আসামি হেলপার বক্কর এখনো পলাতক রয়েছে আমরা আসামিদের গ্রেফতারের অভিযান চলছে।

উল্লেখ্য, গেল শনিবার ভোরে সুনামগঞ্জ শহরের পুরাতন পকবাসস্টেশন এলাকা থেকে ঘটনার ৭ দিন পর বাস চালক মো. শহীদ মিয়াকে গ্রেফতার করে পুলিশে সিআইডি।

তার আগে ২৬ ডিসেম্বর (শনিবার) বিকেলে সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার মদনপুর সড়কের সুজানগর এলাকায় মেয়েটির সাথে চলন্ত বাসে কলেজছাত্রীকে ধর্ষনের চেষ্টা চালায় বাস চালক ও হেলপাররা। এসময় সম্ব্রব বাঁচাতে বাস থেকে লাফ দেয় কলেজছাত্রী। ঘটনার পরদিন অজ্ঞাতপরিচয় তিন জনকে আসামি করে মামলা করেন মেয়েটির বাবা। ঘটনার ২ দিন পর সোমবার ভোরে সুনামগঞ্জ জেলার গোবিন্দগঞ্জ বাজারের বুঙ্গাইরগাঁও থেকে বিশেষ অভিযান চালিয়ে হেলপার রশিদ আহমদকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।

এসময় প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ধর্ষনের চেষ্টার সত্যতা পাওয়া গিয়েছেও বলে জানান পি‌বিআই সিলেটের পু‌লিশ সুপার মুহাম্মদ খালেদ উজ জামান।

পরদিন মঙ্গলবার দুপুরে চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট রাগীব নূরের কাছে ১৬৪ ধারায় ঘটনায় নিজের সম্পৃক্তার কথা স্বীকার করে হেলপার রশিদ আহমদ। পরে আদালত হেলপার রশিদ আহমদকে কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ দেন।

সুনামগঞ্জ২৪.কম/এমএইচ/এসএইচএস