বুধবার, ১ কার্তিক ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৬ অক্টোবর ২০১৯ ইং

এ সপ্তাহে যে দরে বিক্রি হচ্ছে আপনার নিত্য প্রয়োজনীয় ভোগ্যপণ্য

নিউজটি শেয়ার করুন

আশিস রহমান, নিজস্ব প্রতিবেদক :: সুনামগঞ্জ পৌর শহরের বিভিন্ন বাজারে সকাল থেকে রাত অব্দি চলছে ক্রয়-বিক্রয়। নিজেদের সাধ্যের মধ্যে ক্রেতারা কিনছেন তাদের প্রয়োজনীয় ভোগ্যপণ্য। ব্যবসায়িরাও মুনাফা লাভের আশায় নিজেদের সাধ্যমতো ক্রেতাদের জন্য পসরা সাজিয়ে বসছেন বিভিন্ন পন্য সামগ্রীর।

সুনামগঞ্জ২৪.কম এর পাঠকদের জন্য জেলা শহরের এই সপ্তাহের ভোগ্যপণ্যের বাজার দর জানিয়ে দিতে বিভিন্ন বাজার ও দোকানে ঘুরে বেড়িয়েছেন এ প্রতিবেদক। এসময় একাধিক ব্যবসায়ী ও ক্রেতার সঙ্গেও কথা হয় তার। শহরের পুরাতন জেলরোড এলাকার চাল ব্যবসায়ী শহিদুল ইসলামের তথ্য অনুযায়ি মোটা আতপ চাল প্রতি কেজি ২৫ টাকা এবং মোটা সিদ্ধ চাল প্রতি কেজি ২৮ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। পুরোনো আটাশ আতপ চাল ৩২ টাকা এবং নতুন আটাশ আতপ চাল ২৮ টাকা দামে কেজি প্রতি বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া মিনি প্যাক সিদ্ধ চাল বিভিন্ন কোয়ালিটি অনুযায়ি কেজি প্রতি ৪০-৪৫ টাকা দামে বিক্রি হচ্ছে।

সবজি বিক্রেতা সুমন ও আশিকুর রহমান সাইম জানিয়েছেন কেজি প্রতি টমেটো ১৫ টাকা, বিভিন্ন ক্যাটাগরির সীম ১০-২৫ টাকা, শসা ৫০ টাকা, খীরা ২০ টাকা, পরাশ বিচি ৪০-৫০ টাকা, কোয়াশ ২৫ টাকা, কাঁচা মরিচ ৫০ টাকা, গাজর ৩০ টাকা, ডায়মন্ড আলু ২০ টাকা, দেশী আলু ২৫ টাকা, বেগুন ২৫-৩০ টাকা দামে বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া মুলা হালি প্রতি ২০ টাকা, ফুলকপি পিস প্রতি ২০ টাকা, বিভিন্ন সাইজের মিস্টি কুমড়া পিস প্রতি ৪০-১০০ টাকা দামে বিক্রি হচ্ছে।

নতুন বাজারের হাস-মোরগ বিক্রেতা শাহ আলম জানিয়েছেন প্রতি কেজি পোল্ট্রি মুরগি ১৫০ টাকা, পাকিস্তানি মুরগি পিস প্রতি ২৫০-৩০০ টাকা দামে বিক্রি হচ্ছে।

পান বিক্রেতা রুহিত জানান, খাসিয়া পান বিরাট প্রতি ২৫০-৩০০ টাকা দামে বিক্রি হচ্ছে। পাশাপাশি সুপারি গা প্রতি ২০-২৫ টাকা দামে বিক্রি হচ্ছে।

ব্যবসায়ী সুশীল দাস জানান, বিভিন্ন সাইজের লেবু হালি প্রতি ২০-৪০-৮০ টাকা দামে বিক্রি হচ্ছে। এছারাও মুরগের ডিম হালি প্রতি ৩৬-৩৮ টাকা ও হাঁসের ডিম হালি প্রতি ৪৮-৫০ টাকা দামে বিক্রি হচ্ছে।

ব্যবসায়ী জুনায়েদ আহমেদ জানান, কেজি প্রতি নতুন দেশী রসুন ৩০ টাকা, ইন্ডিয়ান রসুন (এলসি) ৮০ টাকা, পেঁয়াজ ২০ টাকা, এলসি পেঁয়াজ ২৫ টাকা, দেশী শুকনো মরিচ ১৩০ টাকা, এলসি শুকনো মরিচ ১৬০ টাকা এবং আদা ৭০ টাকা দামে খুচরা বিক্রি হচ্ছে।

গত সপ্তাহের তুলনায় এ সপ্তাহের বাজারের নিত্য প্রয়োজনীয় ভোগ্যপণ্যের দাম তেমন উঠানামা করেনি বলে জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা।

সুনামগঞ্জ২৪.কম/কেআইএম

নিউজটি শেয়ার করুন

☑ বিজ্ঞাপন™

☑ বিজ্ঞাপন™

☑ বিজ্ঞাপন™

☑ বিজ্ঞাপন™