বুধবার, ১ কার্তিক ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৬ অক্টোবর ২০১৯ ইং

বাজারে মাছের দাম বেশী

নিউজটি শেয়ার করুন

মনোয়ার চৌধুরী :: সুনামগঞ্জ পৌর শহরের বিভিন্ন বাজারে সকাল থেকে রাত অব্দি চলছে ক্রয়-বিক্রয়। নিজেদের সাধ্যের মধ্যে ক্রেতারা কিনছেন তাদের প্রয়োজনীয় ভোগ্যপণ্য। ব্যবসায়িরাও মুনাফা লাভের আশায় নিজেদের সাধ্যমতো ক্রেতাদের জন্য পসরা সাজিয়ে বসছেন বিভিন্ন পন্য সামগ্রীর।

সুনামগঞ্জ২৪.কম এর পাঠকদের জন্য জেলা শহরের মাছের বাজার দর জানিয়ে দিতে বিভিন্ন বাজার ঘুরে বেড়িয়েছেন এ প্রতিবেদক। এসময় মাছ ব্যবসায়ী ও ক্রেতার সঙ্গেও কথা হয় তাঁর।

এসময় বেশ কয়েকজন ক্রেতার সাথে কথা বলে জানাযায়- হাওরের রুই -কাতলার দেখা নেই সুনামগঞ্জের মাছ বাজারে। দেশি রুই বলতে আছে রাজশাহীর। চাঁদপুরের নাম ভাঙিয়ে বিক্রি হচ্ছে চট্রগ্রামের ইলিশ। বাজার সয়লাব ময়মনসিংহের মুক্তাগাছার পাঙ্গাস ও কই মাছে। দেশি মাছ বলতে তেমন নেই। দামও চড়া। তদারকির অভাবেই দাম বেড়েছে বলে অভিযোগ করছেন ক্রেতারা।

শহরের তেঘরিয়ার বাসিন্দা কয়েছ হিমু এ প্রতিবেদককে জানান- ‘বাজারে মাছের দামে পেট ভরে যায়, মাছ কিনমো আর কি একটা আইড় মাছ কিনতে গিয়ে ১১০০টাকা নাই, বাসা থেকে মাগুরমাছ নিতে বলেছেন দাম শুনে কিনা আর হল না।’ এসময় মাহফুজ হাসান নামে আরেকজনসুর দিলেন। তিনি বলেন- ‘সুনামগঞ্জে মাছের যে দাম, মাছ কিনার সাধ্য হয় না।’

পৌর কিচেন মার্কেটের খুচরা মাছ ব্যবসায়ী শফিক উদ্দিন বলেন, ‘আইড় মাছ এক কেজি সাইজ ৬০০টাকার উপর বিক্রি করছেন, মাগুরমাছ ৬০০থেকে ৬৫০টাকা কেজি বিক্রি হচ্ছে, রুই মাছ ৪৫০টাকা কেজি বিক্রি হচ্ছে,বোয়াল মাছ ৪০০টাকা কেজি বিক্রি করছেন।’

এই বিষয়ে জানতে চাইলে পাইকারি মাছ ব্যবসা প্রতিষ্ঠান মেসার্স আদনান মৎস্য আড়ৎ এর ব্যবসায়ী মোঃ সুমন মিয়া বলেন, ‘সুনামগঞ্জ জেলার বিভিন্ন গ্রাম গঞ্জএর হাও র বিল থেকে এখানে মাছ আনা হয়,পাইকারি ভাবে আইড় মাছ এক কেজি সাইজ ৫৫০টাকা কেজি, মাগুরমাছ ৬০০টাকা রুই মাছ ৪৫০টাকা কেজি বিক্রি হচ্ছে।’

অতিরিক্ত দামের কারন জানতে চাইলে তিনি বলেন- ‘দিন দিন মৎস্য উতপাদন কম হচ্ছে, গ্রাম গঞ্জ এর খাল বিল ভরাট হচ্ছে তাই মাছের সংখ্যা কমে যাচ্ছ ফলে বেশি দামে মাছ বিক্রি করতে হচ্ছে।’

সুনামগঞ্জ২৪.কম/কেআইএম

নিউজটি শেয়ার করুন

☑ বিজ্ঞাপন™

☑ বিজ্ঞাপন™

☑ বিজ্ঞাপন™

☑ বিজ্ঞাপন™