বৃহস্পতিবার, ৮ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৩শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

দেশের মানুষ খুশি থাকলেই আমরা খুশি: পরিকল্পনামন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক::

পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান এমপি বলেছেন, বাংলাদেশের এমন কোনো জায়গা নেই যে উন্নয়ন হচ্ছে না। শহর থেকে গ্রাম সব জায়গায় এতো উন্নয়ন অতীতে কোনো সরকার করতে পারেনি। একমাত্র আওয়ামীলীগ সরকার তা করতে পেরেছে।

মন্ত্রী আরও বলেন, আমরা যারাই শেখ হাসিনার সাথে কাজ করি আপনারাই আমাদের সব। আপনাদের উন্নয়নের জন্য আমরা কাজ করি৷ দেশের মানুষ খুশি থাকলেই আমরা খুশি। মহান আল্লাহর কাছে দোয়া করবেন আমরা যেন আপনাদের জন্য কাজ করতে পারি। এটাই শেখ হাসিনার বার্তা। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা হচ্ছেন উন্নয়নের সরকার। তিনি সব সময় ভাবেন যে কোন উন্নয়ন করলে দেশের মানুষের উপকারে আসবে, তাদের ভোগান্তি লাঘব হবে। দেশের মানুষের জন্য তিনি সেটাই করেন। এসময় মন্ত্রী নৌকাবাইচ প্রতিযোগিতার এই সুন্দর আয়োজনকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও বীর মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতি উৎসর্গ করেন।
বৃহস্পতিবার (৯ সেপ্টেম্বর) দুপুরে মুজিব শতবর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে শান্তিগঞ্জ উপজেলার বীরগাঁও ইউনিয়নবাসীর আয়োজনে নৌকাবাইচ প্রতিযোগিতার প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন মন্ত্রী।

নৌকাবাইচ পরিচালনা কমিটির সভাপতি রিয়াজুল ইসলাম রাইজুলের সভাপতিত্বে ও শান্তিগঞ্জ উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান প্রভাষক নূর হোসেনের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সুনামগঞ্জ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নুরুল হুদা মুকুট, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হায়াতুন নবী, শান্তিগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান ফারুক আহমেদ, নির্বাহী অফিসার আনোয়ার উজ জামান, সুনামগঞ্জ জেলা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক আসাদুজ্জামান সেন্টু, জগন্নাথপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম রিজু, পরিকল্পনা মন্ত্রীর একান্ত রাজনৈতিক সচিব হাসনাত হোসেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন শান্তিগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমান,সুনামগঞ্জ জেলা পরিষদের সদস্য জহিরুল ইসলাম, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ জসিম উদ্দিন শরিফী,থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কাজী মুক্তাদির হোসেন ওসি ডিবি ইকবাল বাহার,শিমুলবাক ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান জিতু,দরগাপাশা ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মনির উদ্দিন, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল বাছিত সুজন , জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক কামরুল ইসলাম শিপন।
আকর্ষণীয় সাজে লগি বৈঠা সহ বাহারী নাম উল্লেখ করে নৌকা গুলো যোগ দেয়। এ গুলো হচ্ছে মনির শাহ তরী, পংখী রাজ ,পবন,জল পবন,বাংলার তুফান, পবন কাষ্টের তরী কুনুর শাহ তরী, হিজল তরী,-১ হিজল তরী ২ বাংলার পবন, সোনার তরী, বীর পবন ও বীর বাংলা। হাওরে ছোট বড় নৌকা যোগে লক্ষাধিক নারী পুরুষ উপস্থিত ছিলেন নৌকা বাইচ উৎসব উপভোগ করার জন্য। প্রতিযোগিতায় পরবর্তীতে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন পরিকল্পনামন্ত্রী।

এর আগে সকাল ১১ টায় ৪ কোটি ৭১ লক্ষ ৩৩ হাজার টাকা ব্যয়ে পাগলা বাজার জিসি-পূর্ব বীরগাঁও ইউপি সড়ক পূনর্বাসন ও প্রায় সাড়ে তিন কোটি টাকা ব্যয়ে পাগলা বাজার জিসি-পূর্ব বীরগাঁও ইউপি সড়ক উন্নয়ন কাজের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন পরিকল্পনামন্ত্রী।

error: Content is protected !!